tomay niye..... - usuf islam - new bangla kobita - sopno lekha kabbo grontho .

                  " তোমায় নিয়ে ....  " 
                 " ইউসুফ ইসলাম "

  আচ্ছা শোনো তোমাকে কোনো ভালোবাসা দিবসে

  অথবা মোদের বার্ষিক দিবসে ভালোভাসি বলোব না

  তবে তোমাকে নিয়ে চাঁদনী-পশর রাতে শপ্তোকাশের নিচে

  চাতকি-কায়ায় বলবো কথা মনের ভাষায়

  আলতো পরশে একেদিবো চিন্হ

  তব ললাট-রেখা-চোখের-পাতায় চুম্বন কায়ায়

  আর রাখবো লুকাএ সবের অগোচরে মনের অন্দর হতে অন্দরে

  যেন মুরছা না পরে ঐ শান্তি রথের এই যাত্রা  পথে......।

  কারণে অকারণে কভু যদি অন্ন-গ্রহনে তব মন নাহি ধরে

  আর এমন সমে তব গলানিধন কাইবো আপন হস্তে তুলি গ্রাস

  অতি-স্নেহের বাধন ডোরে

  যেমন করিয়া আসিতে কাছে আপন হয়ে আপনা বেসে

              স্বপ্ন-কায়ার ছলে......

   তেমন করিয়া রাখিব ধরিয়া এ-চলতি পথে

  যেন হারাতে না পারো ঘুমের ঘরে দেখা

  শুন্য সজ্জা মিথ্যে স্বপ্নের মতো    বড় ভয় হয়...

  এ-পথ যে রয়েছে  বড়ই বিপর্যায়ে ঘেরা....!

  জানি, এ-পথের শেষেই ( ..... ) পাবো রথ

  যেথায় রয়েছে, মনোময়-উদ্যান-পাদোদেশে-নহরসমুহ-প্রবাহমান.....।

  তব তরে এ জনমে যদিও নাহি পারিবো গড়িতে প্রাসাদ

তব তোমার লাগি গড়বো ছোট্ট কুটির

  যেথায় সদা নিসিথে চাঁদেরআলো করবে খেলা

  প্রহরী কায়ায় থাকবে লাখো তারোকার মেলা।

  সেথেয় থাকিবে মোদের মাথায় সদা দুই বৃক্ষের শীতল ছায়া

  অতি স্নেহ-মমতা-পূরিত-ভালোবাসা।

  যদি কভু তব মনে কালো মেঘ এসে জমে

  তবে সেথায় আমি বৃষ্টি কায়ায় ধুয়ে দেবো

  ঝরে অঝর  ধারায়  সকল দুঃখ ব্যথা।

  ফাগুনের উদাস হাওয়ায় সন্ধেবেলা

  মাঝ উঠোনে এক ছোট্ট জ্বলচৌকিতে জড়সড়  হয়ে বসবো দুজন

  সুনির্মল আকাশে তারোকার মেলা বসবে

  চাড়ি দিকে কুয়াশায় আপছা চাদরের আভায় ঠেকে দিবে

  কিছু শুকনো খাবার খেতে খেতে আর গল্পো করে মনের অজান্তেই

  আমরা হারিয়ে যাবো দূর ____  প্রান্তে

  সে-মূহুর্ত যে কতোটা মধুর হবে ভাবতেই .....!

  আমাদের নীড় হবে গায়ের মাঠে যেথায় কোন থাকবে না প্রাসাদ কারো

  আর পৌষ-মাঘেরা কুয়াশার আপছা চাদরে ঢেকে দিবে মোদের

  তখন, লুকুচুড়ি খেলবো মোরা

  কখনো আবার দৌড়-ছুটে প্রতিযোগিতা করবো দুজন

  প্রতিযোগিতায় হেরে মন খারাপ হয়ে গেলে

  তখন তোমায় জিতিয়ে দিয়ে তোমার কাঁদোকাঁদো মুখে

  দেখিতে হাসির ঝলক না হয় আমি হেরে যাবো

সে মূহুর্ত যে কত যে আনন্দঘন হবে ভাবতেই ......!

  তোমার জন্য তন্নতন্ন করে খুঁজি সাতসমুদ্র তের নদী দিয়ে পাড়ি

  একশতটি নীল-পদ্য আনতে নাহি পারবো আমি

  আর পারবো না কভু তব তরে দুরান্ত ষাড়ের চোখে বাধিতে লাল কাপড় ......!

  তবে প্রখর রোদে অথবা প্রলয় তান্ডব-বৈশাখী ঝড়ের আঘাত

  তব-পরে আচড়ে পড়ার আগে প্রাচীর হয়ে দাঁড়াবো তার সম্মুখে

  তার চেয়েও বড় কথা তোমায় নিয়ে চলবো আমি

  প্রকৃত-সরল-সঠিক পথে।

  আর ভালোবাসি একথা বলেই ভালোবাসা শেষ করিতে চাহিনা

  তোমাকে লয়ে সেই _____খানে বাধিতে চাহি বাসা

  যেথায় রয়েছে পাদো-দেশে নহরসমূহ

  অনন্ত-অসীম-ভাবনার চেয়েও বহু-গুণ বেশি

  কাণায়-কাণায়-পরি-পুরা-মনোহরা-সবি ......!

               ( স্বপ্ন লেখা কাব্যগ্রন্থ ) 

Post a Comment

0 Comments