bangla new kobita, " " ( প্রমানল কবিতা গুচ্ছ ) 2019.

                   
অস্রুসলিলে গিয়েছিনু বারবারে তব দ্বারে দুঃখ করি আড়াল
ফিরায়ে দিচ্ছ তুমি অনাদরে অবহেলায়
কখনো বা অযাচিত-আচরিতে কি হবে
শতো লানছনা ভুলি আসি ফিরি তব দ্বারে
তব ভাবনা আমি জানিনিকো
জানিনিকো কতোটা করবে আরো বেসি হেয়ো
দুক্ষ হয় বহুবেসি কেন তোমায় ভুলিতে পারি নিকো

আজকে আমায় পরছেনা মনে

একদিন থাকবনা অনেক অনেক দুরে

চলে যাব আসবনা ফিরে কারনে-অকারনে

তোমাদের ভিড়ে সত্যের জ্বাল বুনে

আর কেহ বলবে না বুন্ধু আমি মিথ্যে সাথে নই

চাইলে আর পাবেনা খুজে
হয়তো কবিতার মাঝে পাবে খুজে
আমার তো কিছু দেয়ার মতো নেই
আছে শুধু বুকভরা চাপা কান্না
অস্রুও ঝরে না চোখের কোনে
আমায় কি একটু জ্বল দেবে বলো
সেদিন না হয় এই জ্বল নিয়ো
হয়তো ছিলাম পুজোর ফুল
তারি তরে পুজো শেষে কুল হারিয়ে
ভাষছি শুধু মোহোনার জ্বলে
ঢেউয়ের আঘাতে স্রোতের সাথে
কখন হবো বিলিন সেই আশাতে
দিন গুনি অস্রুজ্বলে

সবাই শুধু হাসি মুখে বন্ধু বেসে পাসে থাকে
সবি অভিনয় বন্ধু তো কেউ নয়
হারিয়ে গেলেও খুজেনা কেহ তাই
থাকবে না পাসে কেহ হাত বোলাতে
মুছবেনা এলে জ্বল চোখের কোনে
একাকি জীবন আজ নিস্য বলে

না হয় আমি হারিয়ে ফেলি ভাষা
তাই করিতে ব্যক্ত মনেরোমাধুরি
মিসায়ে নাহি পারি মনখুলি ,
সজতনে মনমন্দিরে রাহিছি
আপনারে সংগপনে

শেষ হয়েছে যেথায় তোমার সেথায় আমার শুরু
ভাঙ্গা গড়ার খেলা দেখি ত্যক্তভূষণ হতো তুমি, নই তো আমি

নাহি মানি পরাজয় ভালবাসা মোর চিরঅবক্ষয়
তবে দারুণ আহত বটে আজ শিরা

ইশা, জানি এই অপেক্ষা মোর আজন্মকালের
মিটবে কভু কোনো ভাবে ?
তারি তরে নিজের মতো করে নিজেকে দিয়ে বোঝালে আমাকে

আজিও আছি হয়তো সবের দ্বারে হয়ে বিরক্তিকর
কাল হয়তো থাকিবনা হারায়ে যাবো সবকে ছাড়ি করিয়া যাবো দুনিয়া দারি পর
আসিবনা কভু আর ফিরিয়া ফিরিয়া ঘুরিয়া ঘুরিয়া
তাহাদিগের করিবনা ত্যাক্ত বিরক্ত দিবারাত্রি ভরিয়া হেসে নাও বন্ধু হেসে নাও কাল হসিবে কি করিয়া, এ নবোযুগে অবহেলিত হইয়া রহিব কি করিয়া তোমরা সুখে থাকিও বন্ধু হারালে আর আসিবনা ফিরিয়া

Post a Comment

0 Comments